বর্ষায় পানির ট্যাংকের যত্ন

বর্ষায় পানির ট্যাংকের পরিচর্যায় কিছু বাড়তি সতর্কতা থাকলেই আপনি থাকতে পারবেন চিন্তামুক্ত।

** ভূগর্ভস্থ পানির ট্যাংক

ভূগর্ভস্থ ট্যাংক বর্ষাকালে বৃষ্টির সময় বেশি লক্ষ রাখতে হবে। বর্ষার অতিরিক্ত বৃষ্টিতে অনেক সময় ট্যাংক ডুবে যায়। তাই বৃষ্টি হলে ভূগর্ভস্থের ট্যাংকে যেন বৃষ্টির পানি অথবা ম্যানহোলের ময়লা না ঢুকতে পারে, সেদিকে নজর রাখতে হবে। প্রয়োজনে ভূগর্ভস্থের ট্যাংকের চারদিকে ইটের দেয়াল তুলে দেওয়া যেতে পারে। আর যদি তা করা না যায়, তবে যে রাস্তা দিয়ে ট্যাংকে পানি ঢোকে তা বন্ধ করে দিতে হবে। তার পরও যদি বৃষ্টির পানি ঢুকে যায়, তবে ভূগর্ভস্থের ট্যাংকের পানি মোটর দিয়ে সেচে ফেলতে হবে। তারপর ব্লিচিং পাউডার দিয়ে ভালোভাবে ট্যাংক পরিষ্কার করতে হবে। পরিষ্কার করার সময় খেয়াল রাখতে হবে, যাতে কোনো জীবাণু না থাকে। প্রয়োজন হলে কয়েকবার ব্লিচিং পাউডার দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে। পরিষ্কার করার পর ব্লিচিং পাউডার মেশানো পানি মোটর দিয়ে তুলে ফেললে ভালো হয়।

** বাসার ছাদের পানির ট্যাংক

বাসার ছাদের ট্যাংকের ক্ষেত্রে বৃষ্টি বা ম্যানহোলের পানি ঢোকার আশঙ্কা না থাকলেও বৃষ্টির সময় বাড়তি খেয়াল রাখতে হবে। ছাদের ট্যাংক যেখানে বসানো হয়েছে, সেই স্থানটি ছাদের অন্য স্থান থেকে উঁচু হলে ভালো হয়। লাগাতার বৃষ্টিতে ছাদে যেন পানি জমে না যায়, সেদিকে লক্ষ রাখতে হবে। পানি ফেলে দিয়ে ব্লিচিং পাউডার দিয়ে ট্যাংক পরিষ্কার করতে হবে। পরিষ্কার করা হয়ে গেলে ব্লিচিং পাউডারের পানি ফেলে দিন। কয়েকবার ব্লিচিং পাউডার মেশানো পানি পরিষ্কার করে গন্ধ যাওয়ার পর ব্যবহার করুন।

আরও কিছু কথা

— পানি রাখার ট্যাংক সেটা ভূগর্ভস্থ হোক অথবা বাড়ির ছাদেই হোক, নিয়মিত পরিষ্কার করা উচিত।
— ট্যাংকের ভেতর স্যাঁতসেঁতে না হয়ে যায়, সেদিকে নজর রাখতে হবে।
— ট্যাংকের ঢাকনা সব সময় বন্ধ করে রাখবেন।
— ট্যাংকে পানি সরবরাহ লাইনে কোনো ফুটো বা লিক আছে কি না, থাকলে বন্ধ করে দিন।
— পরিষ্কার করার পর ব্লিচিং পাউডারের গন্ধ না যাওয়া পর্যন্ত অন্য পানি ব্যবহার করুন।
— মাঝেমধ্যে ট্যাংকের পানি পরীক্ষা করুন।
— ময়লা-আবর্জনা যাতে ট্যাংকের মধ্যে না পড়ে, সেদিকে নজর রাখুন।

mm

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *