পানি পানের উপকারীতা

সুস্থ ভাবে বেঁচে থাকার জন্য একজন পূর্ণবয়স্ক ব্যক্তির প্রতিদিন প্রায় ৮-১০ গ্লাস পানি পান করা প্রয়োজন । শরীরের জন্য পানির অনেক উপকারিতা রয়েছে।

• ক্লান্তি দূর করতে: শরীরের কর্মক্ষমতার জন্য পানির প্রয়োজন। যদি আপনি ক্লান্তিবোধ করেন তবে তার প্রথম লক্ষণ হচ্ছে ডিহাইড্রেশন। শরীরে পানির শূন্যতা সৃষ্টি হলে হয় শরীরের প্রতি রক্ত কণিকায় অক্সিজেন সরবরাহের জন্য আপনার হৃদপিন্ডকে কঠিন পরিশ্রম করতে । তাই পর্যাপ্ত পানি পান আপনার শরীরকে সতেজ রাখে এবং ক্লান্তিমুক্ত রাখে।
• কিডনি সুস্থ রাখতে : ব্লাড ইউরিয়া নাইট্রোজেন, তরল বর্জ্য পদার্থ রক্ত থেকে ছেঁকে প্রসাবের মাধ্যমে বের করে। বলতে পারেন কিডনি হলো মহাদেবের নীলকণ্ঠ। রক্তকে ঠিক রাখতে দিনের পর দিন যেন বিষ পান করছে কিডনি দুটো। তাই বেশি করে পানি পান করুন। খুব কম পানি পান করলে কিডনিতে পাথর হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
• ক্যালোরি কন্ট্রোল : ডায়েট করার ভালো উপায়, খাবার কম খান, পানি বেশি পান করুন। শ
রীরে ওজন কমানোর ম্যাজিক্যাল উপায় বেশি করে পানি পান করা। এতে ক্যালোরি নষ্ট হয় বেশি।
• হজমে সাহায্য করে : পর্যাপ্ত পানি পান আপনার বিপাক ক্রিয়াকে ত্বরান্বিত করে। যার ফলে খাদ্য কণা সহজে ভেঙ্গে শরীরে পর্যাপ্ত শক্তি সরবরাহ করে। পরিপাকতন্ত্রের জন্য যা খুব সহায়ক।
• ওজন নিয়ন্ত্রণ :একটি ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে বিজ্ঞানীরা দেখেন যে, খাবার খাবার গ্রহণের পূর্বে ২৮ আউন্স পানি খেলে তা আপনার ক্ষুধাকে নিয়ন্ত্রণে রাখে যার ফলে আপনি প্রয়োজনের বেশি খেতে পারবেন না। যেটা আপনার শরীরের ওজন নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করবে।
• শরীরের টক্সিন বের করতে: পানি একটি চমৎকার ডেটোক্সিফার যা আপনার শরীর থেকে টক্সিন ঘাম এবং ইউরিনের মাধ্যমে বের করে দেয়। পর্যাপ্ত পানি পান ইউরিনের মাধ্যমে সল্ট এবং ক্ষতিকর তরল বের করে দেয় যার ফলে কিডনিতে পাথর হতে পারেনা।

Facebook Comments
Share This Post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *